অনলাইন শিক্ষার বিষয়ে জরুরি যে বার্তা দিলেন প্রধানমন্ত্রী - protidinislam.com | protidinislam.com |  
জাতীয়

অনলাইন শিক্ষার বিষয়ে জরুরি যে বার্তা দিলেন প্রধানমন্ত্রী

  প্রতিনিধি ৩০ ডিসেম্বর ২০২১ , ৭:০৮:০৫ প্রিন্ট সংস্করণ

Spread the love

ইসলাম ডেস্কঃ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, করোনার প্রাদুর্ভাব বেড়ে গেলে স্কুলগুলো হয়তো চালু রাখা সম্ভব হবে না।

আরো পড়ুনঃ

এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় অকৃতকার্য শিক্ষার্থীদের যে সুবিধার কথা বললেন প্রধানমন্ত্রী

সে কারণে অনলাইন শিক্ষাটা যাতে প্রত্যেক ঘরে পৌঁছায় সেই ব্যবস্থা নিতে হবে। অনলাইন শিক্ষা চালু রাখায় সরকার সব ধরনের ব্যবস্থা নেবে।

আজ বৃহস্পতিবার গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ এবং প্রাথমিক ও মাধ্যমিকের বই বিতরণ অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের অনলাইনে শিক্ষাটা, এটা চালু রাখতেই হবে। কারণ, আমরা সব সময় যেটা লক্ষ করেছি, এই শীতের পরপর যেন এর প্রাদুর্ভাবটা আবার বেড়ে যায়।’

তিনি বলেন, ‘যদি এর প্রাদুর্ভাব বেশি দেখা দেয়, যেহেতু স্কুলগুলো চালু রাখা সম্ভব হবে না, যে কারণে অনলাইন শিক্ষা যাতে প্রত্যেক ঘরে ঘরে পৌঁছায় সেই ব্যবস্থাটা নিতে হবে।

কারণ এখন কিন্তু বিদ্যুতের সমস্যা নাই। বিদ্যুৎ সব জায়গায় আছে। তা ছাড়া শিক্ষার্থীরা যাতে পড়াশোনাটা অনলাইনে চালাতে পারে তার জন্য যে সমস্ত উপকরণ, যা যা প্রয়োজন সেটা আমরা ব্যবস্থা করব।’

টিকা দেওয়ার ক্ষেত্রে অনেকের অনীহার বিষয়টি উল্লেখ করে তিনি জানান, গতকালই তিনি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে কথা বলে ব্যবস্থা নিয়েছেন, সারা দেশের কমিউনিটি ক্লিনিকগুলোর মাধ্যমে যেন এই টিকাদান কর্মসূচি অব্যাহত থাকে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘একদম তৃণমূল পর্যায়ের মানুষও যেন দ্রুত টিকা নিতে পারে। কারণ, নতুনভাবে যাতে আবার সংক্রমিত না হয় সে ব্যবস্থা আমাদের এখন থেকেই নিতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘আজকে এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে আমি আহ্বান জানাব, আমরা এই টিকাদান কার্যক্রমটা একেবারে তৃণমূল পর্যায় পর্যন্ত নিয়ে যেতে চাচ্ছি।

টিকা কমিউনিটি ক্লিনিকের মাধ্যমেই দেওয়া হবে বা অন্যান্য স্বাস্থ্যকেন্দ্রের মাধ্যমে দেওয়া হবে। কিন্তু যারা টিকা নেন নাই এখনো, তাদেরকে টিকাটা নিতে হবে।’

পরিবারের শুধু অভিভাবক নয়, শিক্ষার্থীরাও যাতে টিকা নেয় সে জন্য ব্যবস্থা গ্রহণে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী একই অনুষ্ঠানে দেশের প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনা মূল্যে ২০২২ শিক্ষাবর্ষের পাঠ্যপুস্তক বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন।

এবার করোনার কারণে ১ জানুয়ারি সারা দেশে পাঠ্যপুস্তক উৎসব না হলেও সেদিন থেকেই দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বই বিতরণ শুরু হবে এবং ভিড় এড়াতে একেক দিন একেক শ্রেণির বই প্রদান করা হবে।

এবার ৪ কোটি ১৭ লাখ ২৬ হাজার ৮৫৬ জন শিক্ষার্থীর মাঝে ৩৪ কোটি ৭০ লাখ ২২ হাজার ১৩০ কপি বই বিনা মূল্যে প্রদান করা হবে।

আরও খবর

Sponsered content

ENGLISH