অবশেষে পাবনায় টিকার টাকা ফেরত দিলেন স্কুল কর্তৃপক্ষ - protidinislam.com | protidinislam.com |  
অপরাধ

অবশেষে পাবনায় টিকার টাকা ফেরত দিলেন স্কুল কর্তৃপক্ষ

  প্রতিনিধি ১৮ জানুয়ারি ২০২২ , ৩:৪৪:৩৪ প্রিন্ট সংস্করণ

Spread the love

পাবনা জেলা প্রতিনিধি: এসি (এয়ার কন্ডিশনার) কেনার টাকা পরিশোধে কোভিড-১৯ টিকা প্রদানে শিক্ষার্থীদের নিকট থেকে ফি আদায় করা টাকা ফেরত দিয়ে দিতে বাধ্য হলেন বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

আরো পড়ুনঃ

সেবা নিতে এসে মানুষ যেন হয়রানির শিকার না হন

পাবনা বেড়া উপজেলার দূর্গম চরাঞ্চলের ঢালারচর ইউনিয়নের বিদ্যালয়টির কর্তৃপক্ষের এমন কান্ডে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা।

এ নিয়ে অনলাইন নিউজ পোর্টাল নিউজ পাবনা ডটকম এ ‘পাবনায় এসি কিনতে করোনা ফি আদায়, ক্ষুব্ধ শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা’ শিরোনামে সচিত্র একটি প্রতিবেদন প্রকাশ হয়।

বিয়ষটি সম্পর্কে এ প্রতিবেদক উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহা. সবুর আলী, শিক্ষা অফিসার খবির উদ্দিন ও স্বাস্থ্য কর্মকর্তার মন্তব্য জানতে চাওয়াতে তৎপর হয়ে ওঠে সবাই।

সারাদেশব্যাপী মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীর করোনা টিকা প্রদান করছেন স্বাস্থ্য বিভাগ।

এরই ধারাবাহিকতায় রবিবার (১৬ জানুয়ারি) সকাল থেকে ঢালারচর উচ্চ বিদ্যালয়ে করোনা টিকা প্রদান কার্যক্রম শুরু হয়।

এ সময় বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ প্রত্যেক শিক্ষার্থীর নিকট থেকে টিকা গ্রহণের সময় বিদ্যালয়ের এসি কেনার ফি বাবদ ৪০ থেকে ৬০ টাকা করে জন প্রতি আদায় করেন।

বিষয়টি নিয়ে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা ক্ষোভ প্রকাশ করলেও বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ টাকা ছাড়া টিকা প্রদান করেননি বলে জানান একাধিক শিক্ষার্থী।

সোমবার (১৭ জানুয়ারি) দুপুরে মাইকিং করে উক্ত বিদ্যালয়ের ফি নেয়া সকল শিক্ষার্থীদের ডেকে প্রত্যেককে ৪০ টাকা করে ফেরৎ দেয়া হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা শিক্ষা অফিসার খবির উদ্দিন ও অত্র বিদ্যালয়ের শিক্ষকগণ। এসময় ৭৮৩ জন শিক্ষার্থীকে টাকা ফেরত দেয়া হয়।

ঢালারচর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুর রশিদ টাকা নেওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে বলেছিলেন, আমাদের বিদ্যালয়ে প্রায় ১১০০ শিক্ষার্থী আছে।

প্রত্যেকের কাশিনাথপুর বা বেড়া উপজেলা সদরে গিয়ে টিকা নিতে হলে কমপক্ষে ৩০০ টাকা করে খরচ হবে ও যাতায়াতের ঝুকিও রয়েছে। তাই বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটি, শিক্ষার্থীদের ও স্থানীয় লোকজনের সাথে পরামর্শ করেই বিদ্যালয়ে তিনদিন আগে এসি লাগিয়ে টিকা দেয়া হবে বলে এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল।

কারন এসি রুম ছাড়াতো আর টিকা দেয়া যেত না। বিষয়টির নেতিবাচক প্রভাব নিয়ে তিনি ভাবেননি। তিনি সরকারের ভাবমূর্তি নস্ট হওয়ার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন। প্রত্যক শিক্ষর্থীদের টাকা ফেরৎ দেয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।

বেড়া উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা খবির উদ্দিন বলেন, সরকারের দেয়া বিনামূল্যের করোনা টিকা প্রদানে ফি আদায়ের কোন আইনগত সুযোগ নেই। তবে টিকা বিতরনের সময় যে টাকাটা নেয়া হয়েছিল সেটা ঠিক হয়নি।

ইউএনও মহোদয়ের নির্দেশে সকল শিক্ষার্থীদের টাকা ফেরৎ দেয়া হয়েছে। টাকা নেয়ার বিষয়ে প্রধান শিক্ষককে ব্যাখ্যা চেয়ে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে বলেও ওই শিক্ষা কর্মকর্তা।

বেড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সবুর আলী বলেন, টাকা আদায়ের সত্যতা পেয়ে তাৎক্ষনিক শিক্ষা অফিসারকে জরুরিভাবে আজকের মধ্যেই টাকা শিক্ষার্থীদের টাকা ফেরত দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছিল এবং সকল শিক্ষার্থীদের টাকা ফেরৎ দেয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।

আরও খবর

Sponsered content

ENGLISH