শাহীন সুলতানার কবিতা "পত্র দিও" - protidinislam.com | protidinislam.com |  
বিনোদন

শাহীন সুলতানার কবিতা “পত্র দিও”

  প্রতিনিধি ২ অক্টোবর ২০২১ , ২:০০:৪৯ প্রিন্ট সংস্করণ

Spread the love

শাহীন সুলতানা

আজ বহুদিন নেই কোনো খোঁজ কোথায় আছো কোন সুদূরে
জানতে খুব-ই ইচ্ছে করে-ঘুম ভেঙে যায় রাত দুপুরে।
বুকের মাঝে ভীষণ পোড়ে- খা খা করে মনের আকাশ
সবটা জানে নীল জোনাকি,ঘাসফড়িং আর ভোরের বাতাস।

বুকের ভেতর উথাল-পাতাল-রোজ বয়ে যায় দমকা হাওয়া
কেমন আছো পত্র দিও- আর কিছু নয় নেইতো চাওয়া।
যেথায় থেকো ভালো থেকো নীল আকাশের তারার মতো
জীবন জুড়ে জুটুক ভালে- সহস্র সুখের প্রদীপ যতো।

এখনো কি আগের মতো- গুনগুনিয়ে গানটা ধরো?
শিউলি-বকুল পুষ্প ভারে- ঘরখানা কি নিত্য ভরো?
এখনো কি সন্ধ্যারাতে- দাওয়ায় বসে প্রদীপ জ্বালাও!
ধূপের ধোঁয়ায় আকুল করে সারা বাড়ি সুবাস ছড়াও?

জানো,বড্ড ইচ্ছে করে-অতীত জীবন ফিরে আসুক
তোমার-আমার ভালোবাসায় ফুল-পাখিরা আবার হাসুক।
আবার তুমি নিয়ম করে লিখবে চিঠি রোজ সকালে…
পাহাড়তলীর হিজল ছায়ে যাবো দুজন রোজ বিকেলে।

হাসবো আবার প্রাণটা খুলে-সবটা দেবো উজাড় করে
বুকের ভীষণ রাখবে কাছে-পড়বে বকুল ঝরে ঝরে।
নামবে পথে আলোর ধারা-সাগর জলে পা ভাসাবো
তোমার বুকে মাথা রেখে-অভিমানী ঠিক হাসাবো।

মেঘের আঁচল মাথায় দিয়ে-পরবো কাজল চোখের পাতায়
মায়ার পুতুল হব তোমার-লিখবে সেসব গানের খাতায়।
কখন যেন রাত্রি এসে-চাঁদের আলো পড়বে চুঁয়ে…
বলবে আমায় ভালোবাসি-আলতো করে চিবুক ছুঁয়ে।

ঘুমিয়ে যাব তোমার বুকে-নীল যমুনার আকাশ তলে
ভোরের হাওয়ায় গাইবে পাখি-উঠবে জোনাক জ্বলে জ্বলে।
উঠবো জেগে আলোর ভেলায়-জাগবে যখন ভোরের রবি
শিশির ভেজা পদ্ম লতায় আঁকবো তোমার শরৎ ছবি।

বলনা’গো কপাল ছুঁয়ে-সব কি আবার সত্যি হবে?
হারানো দিন পাবো ফিরে-আবার তুমি আমার হবে?
মনটা এখন কাঁদছে ভীষণ-দিব্যি দিলাম পত্র দিও…
নিজের দিকে খেয়াল রেখো-খুব করে তার যত্ন নিও।

আরো পড়ুনঃ
আমার কোন আকাশ নেই

ENGLISH